ভাবিয়া করুন আবেদন | ক্যারিয়ার ম্যানেজমেন্ট | শামস্ বিশ্বাস

ভাবিয়া করুন আবেদন | ক্যারিয়ার ম্যানেজমেন্ট | শামস্ বিশ্বাস : চাকরির বিজ্ঞপ্তি দেখলেই তাতে আবেদন করা যায় না। দেখে নেওয়া দরকার অনেক কিছুই। রিটেন ভাইবা উতরে দেখলেন কোম্পানিটা ভুয়া। কিংবা দেখলেন সেখানে কাজ করলে আপনার শুধু খাটাই হবে – কোন উন্নতি হবে না। এমন হলে শুধু শুধু আপনার মূল্যবান সময় নষ্ট হবে।

ভাবিয়া করুন আবেদন | ক্যারিয়ার ম্যানেজমেন্ট | শামস বিশ্বাস

তাই সামনে এগুনোর আগে কয়েকটি বিষয়ে দেখে নেওয়া জরুরি। না হলে তড়িঘড়ি কোনও কাজে ঢুকে পড়া আপনার জন্য সমস্যার হয়ে উঠতে পারে। চাকুরীতে আবেদন করার আগে যে সব বিষয় লক্ষ করবেন তা হল:

ভাবিয়া করুন আবেদন

ওয়ার্ক কালচার

যে কোনও প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব একটা ওয়ার্ক কালচার থাকে। আপনি যেখানে কাজ করতে চাচ্ছেন, সেখানকার ওয়ার্ক কালচার সম্পর্কে জানুন। সেই ওয়ার্ক কালচারের সাথে কতটা মানিয়ে নিতে পারবেন দেখুন। বিভিন্ন সূত্রের মারফৎ জানার চেষ্টা করুন যে, নতুন প্রতিষ্ঠানে আবেদন করতে যাচ্ছেন, সেই প্রতিষ্ঠানের ওয়ার্ক কালচার কেমন, সহকর্মীরা কেমন কিংবা বেশি রাত পর্যন্ত কাজ করলে – বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হয় কি না – এ সব বিষয় জেনে নিন।

Corporate Office 4 ভাবিয়া করুন আবেদন | ক্যারিয়ার ম্যানেজমেন্ট | শামস্ বিশ্বাস

কাজের পরিধি জানুন

আপনি যে পদের জন্য আবেদন করবেন, সেখানে স্বাভাবিক ভাবেই আপনার কাজের পরিধি ও দায়িত্ব, আপনার দক্ষতা ও যোগ্যতার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে। তার পরেও, আবেদন করার আগে বিশদভাবে জেনে নিন কী ধরনের এবং কতটা কাজ করতে হবে। না হলে যোগদানের পরে কাজের পরিধি এবং দায়িত্ব নিয়ে সমস্যা দেখা দিতে পারে৷

Corporate Buildings 3 ভাবিয়া করুন আবেদন | ক্যারিয়ার ম্যানেজমেন্ট | শামস্ বিশ্বাস

কতটা উন্নতি হবে

যেখানেই কাজ করুন না কেন – কাজের ক্ষেত্রে উন্নতি সকলেই চান। এটা পরবর্তী চাকরি পেতেও সহায়ক। বাড়ায় আর্থসামাজিক অবস্থান। তাই নতুন চাকরিতে আবেদন করার আগে, পদোন্নতির সুযোগ সুবিধা, প্রফেশনাল ওয়ার্কশপ, কনফারেন্স ও ট্রেনিং সম্পর্কিত বিষয়গুলোর খোঁজ নিন।

Office Desk 2 ভাবিয়া করুন আবেদন | ক্যারিয়ার ম্যানেজমেন্ট | শামস্ বিশ্বাস

বাড়তি সুবিধা

নতুন চাকরিতে আবেদন করার আগে অন্যতম জরুরি বিষয় হল- সেখানকার বাড়তি সুযোগ সুবিধা সম্পর্কে জেনে নেওয়া। যে বিষয়গুলো খোঁজ নেবেন, তা হল – বছরে মোট কতদিন ছুটি পাবেন। ক্যাজুয়েল, ইমারজেন্সি এবং মেডিক্যাল লিভের সংখ্যা কত, ছুটি নেয়ার নিয়ম কি। স্বাস্থ্যবিমা ও মেডিক্লেমের বাইরে চিকিৎসা সংক্রান্ত আলাদা আর্থিক কী কী সুবিধা আছে। টিএ-ডিএ-র ব্যবস্থা আছে কি না। উৎসব ভাতা, ইয়ারলি বোনাস, ফারর্ফমেন্স বোনাস ও প্রজেক্ট বোনাসের সিস্টেম কি। ইনসেনটিভের থাকলে তা কিভাবে দেয়া হয়। লাঞ্চের ব্যবস্থা কি। ইত্যাদি বিষয়গুলো অবশ্যই জেনে নিতে হবে।

Office Desk 4 ভাবিয়া করুন আবেদন | ক্যারিয়ার ম্যানেজমেন্ট | শামস্ বিশ্বাস

আরও কিছু

আপনি যে পদের জন্য আবেদন করতে চাইছেন, সেখানকার বেতনের পরিমাণ সম্পর্কে জানুন। তা কতখানি আপনার চাহিদা, লাইফস্টাইল এবং সামাজিক অবস্থানের সাথে ম্যাচ করে তা বিবেচনা করুন। অফিস এবং থাকার জায়গার মধ্যে দূরত্বটা বিচার করুন। ট্রান্সপোর্টের সুবিধা আছে কি না। মহিলাদের ক্ষেত্রে অফিসের পরিবেশ কতটা নিরাপদ, সেটাও জানা দরকার। কাজের সময় সম্পর্কে খোঁজ নিন।

অনেক অফিসে ঢুকার সময় ফিক্সড কিন্তু বেরোনোটা না। অনেক রাত পর্যন্ত কাজ করতে হয়। সেক্ষেত্রে, বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা আছে কি না। সেটাও দেখার বিষয়। যদি সব কিছু ম্যাচ করে এবং নিয়োগের বিষয়টা কনফ্রম হয়ে যায় তাহলে চাকরিতে যোগ দেওয়ার সময় এইচআর-এর সঙ্গে এই সব বিষয়গুলি আর এক বার ঝালাই করে নিন। সব কিছুর সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা চাকরিতে যোগ দেওয়ার আগেই থাকা ভালো। কারণ, পরে সমস্যা হলে ফিরে আসার সুযোগ কমে যায়।

আরও পড়ুন:

Leave a Comment